1. riyaakhter747@gmail.com : Riya Akther : Riya Akther
অল্প বয়সী মেয়ে পটানোর ডায়লগ ১০০% কার্যকর
মেয়ে পটানোর ডায়লগ
অল্প বয়সী মেয়ে পটানোর ডায়লগ ১০০% কার্যকর

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন আজ আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব বর্তমানে সব থেকে বেশি জনপ্রিয় কার্যকরী অল্প বয়সী মেয়ে পটানোর ডায়লগ। আমাদের মত অনেকে আছেন যারা অল্প বয়সে মেয়েদের সাথে রিলেশন করে থাকেন অথবা মেয়েদেরকে পটাতে চান। বাট আমরা সবাই জানি অল্প বয়সে মেয়েদের পটাতে ব্যাপক কষ্ট করতে হয় এবং অনেক বুদ্ধি খাটাতে হয়।

যেমন অল্প বয়সী মেয়ে পটানোর ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ক্ষেত্রে ডায়লগ দিতে হয়। কিন্তু কত ডায়লগ আর আপনি বানাবেন বা আপনি যে সব সময় ডায়লগ বানাতে পারবেন এমনটা নয়। আর আপনি যে ডায়লগটি মেয়েটিকে দিবেন তাতে যে মেয়েটি গোলে আপনার প্রেমে পড়ে যাবে তেমনটা নাও হতে পারে। তাই আজ আমরা আপনাদের অল্প বয়সে মেয়ে পটানোর জন্য সবথেকে জনপ্রিয় ও কার্যকরী কয়েকটি ডায়ালগ আপনাদের শেয়ার করব।

অল্প বয়সী মেয়ে পটানোর ডায়লগ

আপনারা চাইলে এসব ডায়লগ থেকে আইডিয়া নিয়ে পরবর্তীতে নিজের মনের মতো করে একটি রোমান্টিক ও ভালো ডায়লগ বানাতে পারেন। অথবা এই ডায়লগটি আপনি হুবহু ব্যবহার করতে পারেন। আমরা আপনাদের মাঝে যে ডায়লগ গুলো শেয়ার করব সেগুলোতে মেয়েদের কথার কিছুটা পরিবর্তন হলেও  আপনার বা ছেলেদের কথার তেমন কোন পরিবর্তন হবে না আশা করি। আপনি চাইলে এগুলো ফেসবুকে চ্যাটিং এর ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন অথবা আপনার ভালবাসা মানুষের সাথে যখন সরাসরি কথা বলবেন তখন এগুলো ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে চলুন আর দেরি না করে দেখে নেওয়া যাক ডায়লগ গুলো।


ডায়লগ নাম্বার

আপনি মেয়েটিকে বলতে পারেন- তোমাকে আমার খুব ভালো লাগে! তুমি আমার সঙ্গে প্রেম করো কিংবা না করো,  সেটা আলাদা ব্যাপার,  ভিন্ন কথা। কিন্তু তোমার সঙ্গে একটু কথা বলার ইচ্ছা হলে,  প্লিজ তুমি একটু আমার সঙ্গে ভালোভাবে কথা বলিও। তাহলেই হবে, ব্যাস। প্লিজ তুমি আমাকে কথা দাও এই ছোট্ট আবদার টুকু রাখবে!

তো বন্ধুরা আপনি যখন এই কথাটি কোন অল্প বয়সে মেয়েকে পটানোর জন্য বলবেন তখন মেয়েটি স্বাভাবিকভাবে আপনার প্রতি কিছুটা হল ইম্প্রেস হয়ে যাবে। ধীরে ধীরে আপনার প্রতি দুর্বল হবে এবং ভাললাগা শুরু করে দেবে। আর একটা সময় ঠিকই আপনি যদি ধৈর্য ধরে থাকেন তবে আপনার আবদার টুকু সে রেখে দেবে এবং তার হৃদয় আপনার জায়গা বানিয়ে নিতে পারবেন।


ডায়লগ নাম্বার

আপনি মেয়েটিকে বলতে পারেন- তোমাকে ছাড়া আমি বাঁচবো না! তোমাকে না পেলে আমি আমার জীবনটাকে খতম করে দিব,  ছিন্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে যাব নিজের জীবনের থেকে। তোমাকে যদি নাই বা পাই তাহলে বেঁচে থেকে এই পৃথিবীতে আর লাভ কি!  মরে যাওয়াই এর চেয়ে অনেক ভালো। 

এই কথাটি বলার পর আপনি আবার সত্যি সত্যি ইঁদুর মারার বিষ কিনতে বাজারে যায়েন না অথবা বিষ খাইয়েন না। এটা জাস্ট শুধু মাত্র আপনি মেয়েটিকে কত ভালবাসেন এবং মেয়েটিকে ভয় দেখানোর জন্য। এতে করে মেয়েটি মনে করবে আপনি সত্যি সত্যি তাকে অনেক ভালোবাসেন এবং আপনি তাকে না পেলে সত্যি সত্যি বিষ খেয়ে মরে যেতে পারেন।


ডায়লগ নাম্বার

আপনি মেয়েটিকে বলতে পারেন- তুমি আমাকে ভালো না বাসলেও আমি তোমাকে একাই নিজের থেকে ভালবেসে যাব। তুমি আমার দিকে তাকাও কিংবা না তাকাও,  তোমাকে একটি নজর দেখার জন্য প্রতিদিন তোমার স্কুল গেটের সামনে দাঁড়িয়ে থাকবো ঠিকই। এতে করে তুমি আমাকে যতই অপমান করো না কেন, আমার সঙ্গে যতই খারাপ আচরণ করো না কেন; আমি তবুও তোমাকে একান্ত ও নীরবে ভালোবেসেই যাবো।

 এ ধরনের ডায়লগ এর মাধ্যমে আপনি তাকে ইমোশনাল করতে পারেন। কারণ প্রত্যেকটি মেয়ে চাই এমন কাউকে ভালবাসতে যে তাকে অনেক বেশি কেয়ার করবে এবং তার দেওয়া শত আঘাতের পর তাকে ভালবেসে যাবে।


ডায়লগ ও কথা নাম্বার – ৪

এবার আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব বর্তমান সবথেকে বেশি কার্যকরী কম বয়সী মেয়েদের পটানোর ডায়লগযে মেয়ের সাথে আপনার নিয়মিত কথা হয়। যার সাথে আপনি টুকটাক মজা করেন এমন মেয়েকে পটাতে চাইলে তার সাথে কথা বলার সময় আপনি তাকে বলতে পারেন।

তোমাকে আগে থেকেই একটা কথা বলে রাখি।

মেয়ে তখন হয়তো বলবে,হুম বলো।

তখন আপনি বলবেন- আমি যদি তোমার প্রেমে পড়ে যাই,তো এতে কি‘ আমার কোনো দোষ নেই।

কারন, তোমার মিষ্টি মিষ্টি কথা আমাকেফাসাইসে।


তো বন্ধুরা আশা করি পোস্টে আপনাদের ভালো লেগেছে। এ ধরনের নতুন নতুন পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন। আর পোস্টে যদি আপনার সত্যি ভাল লেগে থাকে তবে আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে তাদেরকেও দেখার সুযোগ করে দিন এবং আপনি যদি ইতিমধ্যে আমাদের ওয়েবসাইটি সাবস্ক্রাইব করে থাকেন তবে আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
Riya Akther
আমার নাম রিয়া আক্তার। আমি একজন স্টুডেন্ট। মেয়ে পটানোর থেরাপি সম্পন্ন ব্যতিক্রমধর্মী একটি ওয়েবসাইট। আমি মূলত মেয়ে পটানোর থেরাপির ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেল লিখেছি। আমি আমার আর্টিকেলে আপনাদের মাঝে যেসব আইডিয়া শেয়ার করেছি এগুলো মূলত আমার বন্ধু বান্ধব ও বান্ধবীদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে নিয়েছি। আমার এই ওয়েবসাইটে কাজ করার উদ্দেশ্য হচ্ছে উদ্দেশ্য হচ্ছে যাতে করে সবাই তার ভালোবাসার মানুষের কাছে তার মনের কথা খুব সহজে জানাতে পারে এবং আমার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আমি যাতে আপনাদের ভালোবাসার মানুষটিকে পেতে আপনাদেরকে সকল ধরনের সাহায্য করতে পারি।