1. riyaakhter747@gmail.com : Riya Akther : Riya Akther
 বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস
 বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস
 বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন এখন আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস। আমরা অনেকেই আছে যারা বন্ধুদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম আঘাত পেয়ে থাকে এবং সেগুলো কাউকে শেয়ার করতে পারেনা। আর এসব কষ্ট শেয়ার করতে না পারার কারণে আমরা মানসিকভাবে আরও বেশি দুর্বল হতে থাকে এবং আমাদের মনে এই কষ্ট আরো বাড়তে থাকে। অথচ আপনি চাইলে ইনডাইরেক্টলি এই কষ্ট মানুষের মাঝে শেয়ার করে খুব সহজে নিজের মনকে হালকা করতে পারেন। আর আজ আমরা আপনাদের সাথে সে বিষয়ে আলোচনা করব। সেই সাথে শেয়ার করব জনপ্রিয় কিছু কষ্টের facebook স্ট্যাটাস।

 বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস

বন্ধু মানেই বিপদে পাশে থাকা সুখে দুখে সবসময় আপনার ছায়াসঙ্গী হয়ে থাকবে এমনই বুঝায়। আপনি যখন বিপদে পড়বেন তখন আর সবার আগে আপনার বন্ধু আপনার পাশে এসে দাঁড়াবে ।আর স্বাভাবিকভাবেই তাই আপনি যখন কোন সমস্যায় পড়েন তখন আপনি সবার আগে আপনার বন্ধুকে ফোন দেন। এর কারণ হলো আপনি তাকে বিশ্বাস করেন। আপনি এটা বিশ্বাস করেন যে আপনি যখনই কোন সমস্যায় পড়বেনা সেটা যদি আপনার বন্ধু জানতে পারে তবে সবার আগে সে আপনার পাশে দাঁড়াবে।

আপনি কারো কাছে কোন কথা শেয়ার করতে না পারলেও আপনি আপনার বন্ধুর কাছে সব কথা শেয়ার করতে পারেন। কিন্তু এই বন্ধুই মাঝে মাঝে অনেক সময় কষ্টের কারণ হয়ে যায়। কোন কারনে হঠাৎ করে আপনাকে ধোকা দিয়ে দেয় এবং আপনার থেকে দূরে সরে যায়। আবার কোন সময় দেখা যায় যে আপনার সব থেকে কাছের বন্ধু যাকে আপনি অনেক বিশ্বাস করেন সেই আপনাকে পিছন থেকে ছুরি মেরেছে এবং আপনাকে বিপদে ফেলে দিয়েছে। তখন বিপদে পড়ার চেয়ে বন্ধুর দেওয়া ধোঁকা আরো বেশি কষ্টদায়ক হয়।

বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস

আর এই কষ্ট কখনো কেউ সহ্য করতে পারে না এবং কাউকে বলতেও পারে না। যেহেতু এই কষ্ট কেউ বলতে পারেনা এবং সহ্য করতে পারে না তাই মনের ভিতর রাখাই কষ্ট মনকে আরো বেশি ক্ষতবিক্ষত করে ফেলে। ধীরে ধীরে মানুষটি মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে এবং সকল কাজকর্ম থেকে তার মন উঠে পড়ে। অথচ আপনি চাইলে নিজের মনকে হালকা করার জন্য নিজের ফেসবুকে ইনডাইরেক্টলি এসব কষ্টের কথা শেয়ার করে সবাইকে জানাতে পারেন। এতে করে আপনার মন হালকা হয়ে যাবে এবং আপনার মনের কষ্ট কিছুটা হলেও কমবে।

এখন আপনার মতে প্রশ্ন আসতে পারে কিভাবে আপনি এসব কষ্ট শেয়ার করবেন। আপনি চাইলে ফেসবুকে ইনডাইরেক্টলি বিভিন্ন ধরনের কষ্টের স্ট্যাটাস দিয়ে এসব মনের কথা শেয়ার করতে পারেন। নিচে আমরা আপনাদের মাঝে এ ধরনের কিছু বন্ধু নিয়ে কষ্টের স্ট্যাটাস শেয়ার করেছি আপনি চাইলে দেখে নিতে পারেন। আর আমরা আপনাদের মাঝে যেসব স্ট্যাটাসগুলো শেয়ার করব এগুলো আপনি যেন হুবহু কপি করে আপনার ফেসবুকে স্ট্যাটাস হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। অথবা আপনার কষ্টের সাথে যে স্ট্যাটাসের মিল রয়েছে সেটি আপনি সিলেট করে এরপর কপি করার পর কিছুটা এডিট করে ব্যবহার করতে পারেন।

১.   জীবনের সবাই অন্তত একবার হলেও নিজের বন্ধুর কাছে বিশ্বাসঘাতকতার শিকার হয় অথবা অপমানিত হয়। এটা খুবই দুঃখজনক। এমন বন্ধুত্বের চেয়ে একা থাকা শ্রেয়।

২.   জীবনে যদি এমন একজন বন্ধু না থাকে যার কাছে সমস্ত কথা বলা যায়, তাহলে তা নেশাগ্রস্ততা বা ওবেসিটির মতোই স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

৩.    ২০০৪ সালে আমেরিকান সোশিওলজিক্যাল রিভিউয়ের একটি রিপোর্ট বলছে গত ২০ বছরে অর্থাৎ গত শতাব্দীর আশির দশক থেকে মিলেনিয়াম দশক পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে বিশ্বস্ত বন্ধুর সংখ্যা গড়ে এক-তৃতীয়াংশ কমে গিয়েছে।

৪.   কথায় বলে, বন্ধুত্বে যদি সত্যিই প্রাণের টান থাকে তবে ৫০ বছর কোনও যোগাযোগ না থাকার পরে দেখা হলেও বন্ধুরা একে অপরকে ঠিক আগের মতোই জড়িয়ে ধরে।

৫.   একজন মানুষের সারা জীবনে গড়ে ৩৯৬ জন ভাল বন্ধু হয়। কিন্তু মজার ব্যাপার হল প্রতি ১২ জন বন্ধুতে মাত্র একজন বন্ধু শেষ পর্যন্ত টিকে যায়।

৬.   করনেল বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণা রিপোর্ট বলছে, বেশিরভাগ মানুষেরই জীবনে সর্বাধিক দু’জন প্রিয় বন্ধু বা বেস্ট ফ্রেন্ড থাকে।

৭.   একজন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ ও একজন প্রাপ্তবয়স্ক মহিলার মধ্যে কোনও রকম যৌন চাহিদা ছাড়াই নিছক বন্ধুত্ব অত্যন্ত বিরল। উইসকনসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণা বলছে সাধারণ বন্ধুত্বের ক্ষেত্রেও ৮৮ শতাংশ পুরুষ তাদের বান্ধবীদের প্রতি শারীরিকভাবে আকৃষ্ট।

৮.  বন্ধুত্ব হল এমন একটি অনুভূতি যা শিশুদের মধ্যে তৈরি হয় সেই সময় থেকে যখন তারা ভালভাবে নিজেকে প্রকাশ করতেও শেখে না। কোনও বিশেষ খেলনা বা সফট টয়ের প্রতি শিশুদের আকর্ষণ আসলে এক ধরনের বন্ধুত্বই।

৯.  কর্মস্থলে বন্ধুত্ব খুবই বিরল। সহকর্মী আর বন্ধু কখনওই সমার্থক নয়। লিঙ্কডইন-এর একটি সমীক্ষা বলছে ১৯৮০ সালের পরে যাঁদের জন্ম তাঁদের মধ্যে ৬৮ শতাংশ মানুষ

 ১০. প্রোমাশনের জন্য সহকর্মীর সঙ্গে বন্ধুত্ব ত্যাগ করতে রাজি।

১১.  ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা অনেক বেশি বন্ধুবৎসল হয়। লন্ডনের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গবেষণা বলছে ছেলেরা ১২.  বন্ধুদের চেয়েও বেশি মূল্য দেয় পারিবারিক সম্পর্কগুলিকে।

১৩.  বন্ধুত্ব সেটা নয়, যা তুমি ভুলে যাও। বন্ধুত্ব সেটি, যা সারাজীবন তোমার মনের ভেতরে থাকে।

১৪.  বন্ধু হবে এমন একজন ব্যক্তি যে কিনা আপনি চুপ থাকলে আপনার কথা বুঝতে পারবে। বরং সবচেয়ে কষ্টের ব্যাপার তো সেটাই যখন আপনার মন খারাপের সময় বন্ধুরা চুপিসারে কেটে পড়ে।

১৫.  জীবনে যদি এমন একজন বন্ধু না থাকে যার কাছে সমস্ত কথা বলা যায়, তাহলে তা নেশাগ্রস্ততা বা ওবেসিটির মতোই স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

১৬.  মানুষের জীবনে পরিবার থাকে, বন্ধু থাকে। কখনো কখনো সেই বন্ধুরাই পরিবার হয়ে যায়।

১৮.  চার্লি চ্যাপলিন একবার একটা কথা বলেছিলেন, “এই পৃথিবীতে আয়নাই আমার বিশ্বস্ত বন্ধু। কারণ আয়নার সামনে আমি যখন কাঁদি, তখন আয়নায় থাকা প্রতিবিম্ব হাসেনা।”

১৯.    বাংলায় একটা প্রবাদ আছে, “সুসময়ে বন্ধু বটে অনেকেই হয়। দুঃসময়ে হায় হায় কেউ কারো নয়।” তাই একটি ভালো বন্ধুত্বের জন্য অবশ্যই দুইজন ভালো মানুষ প্রয়োজন।

২০.    নিজের কষ্টের মুহূর্তগুলোতে একজন বন্ধু পাওয়া সত্যিই সৌভাগ্যের। সে যেন ছায়ার মত আপনার পাশে এসে বসবে। আর বলবে সব ঠিক হয়ে যাবে। ‌

২১.    বন্ধুদের নিয়ে স্কুল প্রাঙ্গণটা ভরে থাকতো। অথচ আজকে কে কোথায় কেউ জানে না। সবাই এতটাই ব্যস্ত হয়ে পড়েছে যে, হয়তো নিজের বন্ধুর নামটা ও ভুলে গেছে। প্রতিটা সম্পর্ক যেন হালকা হয়ে যাচ্ছে।

২২.  বন্ধুহীন মানুষ পাথরের ন্যায় কঠিন হয়ে থাকে। কিন্তু বন্ধু ই যেখানে ধোকাবাজ হয়। সেখানে মানুষের বিশ্বাস বলে আর কিছু থাকে না। শুধু প্রেম নয় মাঝে মাঝে একটা খারাপ বন্ধুত্ব ও হৃদয় ভেঙ্গে দিতে পারে।

২৩.  একজন বন্ধু যখন আপনার নিজস্ব পৃথিবী হয়ে ওঠে। আপনি তখন তার সাথে সবকিছু শেয়ার করতে পারেন। যেন একই অস্তিত্বের দুটো মানুষ। তবে এরকম বন্ধু বিয়োগে সবচেয়ে বেশি কষ্ট হবে আপনার ই। তাই যতটা সম্ভব এরকম বন্ধুকে ধরে রাখার চেষ্টা করুন।

২৪.   প্রকৃত ধনী তো সে, যার একজন ভালো বন্ধু আছে। যদিও জীবনের একটা সময় ব্যস্ততা আর দায়িত্বের বেড়াজালে বন্দী হয়ে বন্ধু গুলো এক এক করে হারিয়ে যায়। তবু ও সুন্দর কিছু স্মৃতি রেখে যায়।

২৫.  আপনার বন্ধুদের কাছে আপনি একটি খোলা বই। গোপনীয়তার কিছু নেই। সবকিছু সহজ সরল স্পষ্ট। এখানে আপনি পূর্ণ স্বাধীনতা পাবেন আর সমর্থন পাবেন।

বন্ধু নিয়ে কষ্টের ছন্দ স্ট্যাটাস

বন্ধুরা এবার আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব বর্তমানে সেরা কিছু বন্ধু নিয়ে কষ্টের ছন্দ স্ট্যাটাস। অনেকে আছেন যারা কবিতা করে facebook স্ট্যাটাস দিতে পছন্দ করেন। তারা চাইলে নিচে থাকা বন্ধু নিয়ে কষ্টের ফেসবুকে স্ট্যাটাস গুলো দেখে নিতে পারেন। আবার আপনি চাইলে এসব স্ট্যাটাস গুলো থেকে আইডিয়া নিয়ে নিজের মনের মত করে কিছু স্ট্যাটাস তৈরি করে ফেসবুকে শেয়ার করতে পারেন কোন সমস্যা নেই।

১.   বন্ধু কখনও অবহেলা নয়,

বন্ধুকে হ্রদয় মাঝে গেথে রাখতে হয়।

বন্ধু হলো সুখ – দুঃখের সাথী,

এমন বন্ধু রেখো না,,

যে তোমার করে ক্ষতি।।।

২.   কিছু বন্ধুত্ব টম ও জেরির মতো,

তারা,,,,, একে অপরকে জ্বালাতন করে,,, দুষ্টুমি করে,,, মারপিট করে।

কিন্তু একে অন্যকে ছাড়া বাঁচতে পারে না। (প্রিয় বন্ধু স্ট্যাটাস)

৩.   কখনও তুমি বন্ধুত্বকে কিনতে পারবে না।

তুমি এটা উপার্জন করে নাও,,।

কেউ যদি সাহায্যের জন্য আসে…

তখন তুমি পকৃত বন্ধু হয়ে যেও।

৪.   জিনিসের পরিবর্তন হতে পারে.

অর্থের অপচয় হতে পারে…

জীবিকার পরিবর্তন হতে পারে.

কিন্তু কলিজার বন্ধুত্বের পরিবর্তন হয় না।

৫.   না বলা কথা না বলাই থাকুক,

ভালোবাসা না হয়, বন্ধুত্ব ই বাঁচুক।

**মিস ইউ বন্ধু**

বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস ছবি কষ্টের

বন্ধুরা এবার আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব বর্তমানে সেরা ও জনপ্রিয় কিছু বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস ছবি কষ্টের। আমরা আপনাদের মাঝে যেসব ছবি শেয়ার করছে। এগুলো আমরা বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও ফেসবুক থেকে সংগ্রহ করার পর এর জনপ্রিয়তা যাচাই-বাছাই শেষে আপনাদের মাঝে শেয়ার করা হয়েছে। তাই আপনি চাইলে এগুলো এডিট করে অথবা হুবহু কপি করে ব্যবহার করতে পারেন কোন সমস্যা নেই।

বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস কষ্টের ছবি 5

বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস কষ্টের ছবি 4

বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস ছবি কষ্টের 3

বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস ছবি কষ্টের 2

বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস ছবি কষ্টের 1

আশা করি আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে। এই ধরনের নতুন নতুন পোস্ট সবার আগে পেতে আমাদের ওয়েবসাইট এ সাবস্ক্রাইব করে রাখুন। আর আপনি যদি ইতিমধ্যে আমাদের ওয়েবসাইটে সাবস্ক্রাইব করে থাকেন তবে আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
Riya Akther
আমার নাম রিয়া আক্তার। আমি একজন স্টুডেন্ট। মেয়ে পটানোর থেরাপি সম্পন্ন ব্যতিক্রমধর্মী একটি ওয়েবসাইট। আমি মূলত মেয়ে পটানোর থেরাপির ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেল লিখেছি। আমি আমার আর্টিকেলে আপনাদের মাঝে যেসব আইডিয়া শেয়ার করেছি এগুলো মূলত আমার বন্ধু বান্ধব ও বান্ধবীদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে নিয়েছি। আমার এই ওয়েবসাইটে কাজ করার উদ্দেশ্য হচ্ছে উদ্দেশ্য হচ্ছে যাতে করে সবাই তার ভালোবাসার মানুষের কাছে তার মনের কথা খুব সহজে জানাতে পারে এবং আমার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আমি যাতে আপনাদের ভালোবাসার মানুষটিকে পেতে আপনাদেরকে সকল ধরনের সাহায্য করতে পারি।