1. riyaakhter747@gmail.com : রিয়া আক্তার : রিয়া আক্তার
ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর উপায়, প্রশ্ন, জোকস
ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর উপায়
ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর উপায়, প্রশ্ন, জোকস

হ্যালো বন্ধুরা আজ আমরা আপনাদের মত সম্পূর্ণ নতুন একটি আর্টিকেল নিয়ে এসেছি। আজ আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর উপায়, প্রশ্ন, এসএমএস, জোকস। আমরা আপনাদের চাহিদা ও প্রয়োজন অনুযায়ী সব সময় নানা রকম আর্টিকেল ও বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করে থাকি। তেমনি বোকা বানানোর উপায় প্রশ্ন এবং এসএমএস সম্পর্কে জানতে চেয়ে আমাদের বিগত কন্টেনগুলোতে নানারকম কমেন্ট করেছেন। যার কারণে আমরা আপনাদের মাঝে আর্টিকেলটি শেয়ার করছি।

ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর উপায়

আমরা সবাই জানি গার্লফ্রেন্ড অথবা অন্য কাউকে বোকা বানাতে সবাই পছন্দ করে। সেটা হতে পারে নানা রকম প্রশ্ন করে অথবা হঠাৎ করে নানা ঝুমকা কোন কথা বলে বা কোন জোকস শুনিয়ে হাসানোর মাধ্যমে। অনেকে আছেন যারা নিজের গার্লফ্রেন্ডকে অথবা বন্ধু-বান্ধবকে বোকা বানাতে চাইলো কিভাবে বোকা বানাতে হয় সেটা জানেন না আজ আমরা আপনাদের সে বিষয়টি শিখিয়ে দেব। আজ আমরা আপনাদের বোকা বানানোর কিছু উপায় গুলো শিখিয়ে দেবো এগুলো মূলত আমি বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করে এরপর এর কার্যকারিতা যাচাই-বাছাই শেষে আপনাদের মাঝে শেয়ার করেছি। তাই আপনি এগুলো নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন।  তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

মেয়েদের বোকা বানানোর উপায়

প্রথমে আমরা আপনাদের সাথে আলোচনা করব মেয়েদের বোকা বানানোর উপায় নিয়ে। আপনার যদি গার্লফ্রেন্ড থেকে থাকে তবে আপনি তার সাথে মজা করার জন্য মাঝে মাঝে তাকে বোকা বানাতে পারেন। এতে করে সে আপনাকে অনেক বেশি চালাক এবং স্মার্ট মনে করবে।তাহলে চলুন দেরি না করে উপায় গুলো দেখে নেওয়া যাক

মেয়ে: তুমি একটা বদ।

ছেলে : তুমি কি ভালো?

মেয়ে: হ্যা আমি ভালো।

ছেলে : তার মানে তুমি বদ না?

মেয়ে: হ্যা, আমি বদ না।

ছেলে : -RFL বদনা?

মেয়ে: না, মানে আমি বদ না।

ছেলে : সেটাই তো বললাম তুমি RFL বদনা

অনেক মেয়ে “মুলা” দিয়ে করে,

আবার অনেক মেয়ে “গাজর” দিয়ে ও করে,

আবার অনেক মেয়ে “শষা” দিয়ে ও করে।

আবার সব কিছু একসাথে দিয়ে ও করে।

কি করে জানো ?? .

আরে সালাদ তৈরী করে!

সবাই রাতে দেয়, কেও সময় পেলে দিনেও দেয়,

টানা ১ ঘন্টা আবার ২ ঘন্টা ও দেয়, কেও কেও সারা রাত দেয়,

কেও আবার সকালেও দেয়!

দেওয়ার সময় পুরা গরম হইয়া যায় । .

এভাবেই সবাই মোবাইল চার্জ দেয়! হে হে হে।

ছেলে: তুমি কি জানো, আজকে আমি খুব মজার কিছু দেখেছি!
মেয়ে: কি দেখেছো?
ছেলে: একটা বিড়াল চশমা পরে রাস্তা পার হচ্ছিল!

মেয়ে: তুমি কি জানো, আমি অনেক বুদ্ধিমতী।
ছেলে: সত্যি?
মেয়ে: হ্যাঁ।
ছেলে: তাহলে তুমি কি “বুদ্ধিমতী” নুডলসের মতো?

থাকব না আর বদ্ধ ঘরে,দেকমু এবার মাইয়া গোরে……..কেম্নে তারা মেক আপমাখে,

উপ্রে-নিচে সমানকরে……………..!!দিন হোতে দিন দিনান্তরে,

কেমন করে BF ধরে…..???কোন উপায়ে,কোন জাদুতে ছেলেদের পকেট ফাকা করে

ছেলেদের বোকা বানানোর উপায়

আপনার যদি কোন বন্ধু থেকে থাকে তবে আপনি খুব সহজেই তাকে বোকা বানাতে পারেন। তবে মাঝে মাঝে খেয়াল রাখবেন যাতে আপনার মার খেতে না হয়। কেননা ছেলেদের বোকা বানালে তার অল্পতেই ক্ষেপে যায় এবং আপনার উপর রাগ করে থাকতে পারে। তাহলে চলুন আর দেরি না করে ছেলেদের বোকা বানানোর উপায় গুলো দেখে নেওয়া যাক।

তুমি বীর , তুমি দুর্জয়, তুমি বাঙ্গালি, তুমি সাহসী, তোমার বুকে অনেক জোর, তুমি আমাদের গ্রাম’ এর মুরগী চোর!

আমি কান্না, তুমি হাসি; আমি টাটকা, তুমি বাসি। আমি বিষন্ন, তুমি হতাশা; আমি কদমা, তুমি বাতাসা। আমি কাঁথা, তুমি বালিশ আমি ব্যথা । তুমি মালিশ। আমি হাত, তুমি পাও; আমি নগদ, তুমি ফাও

অরে মন কথা শুন, যাবি চলে বান্দরবন, বানরের মত সবাই ঝুলবি নাকি বল? অরে বাচাও আমায়, একটা বানর আমার পিছু নিয়েছে। সেই বানরটা এসএমএস পরতেছে।

পিপড়া একটা পশু, তেলাপোকা একটা পাখি, কচুপাতার পানি, তুমি একটা প্রাণী।

দু হাত বাড়িয়ে আকাশ পানে চাও, নিজেকে পাখি মনে হবে।জোছনা রাতে চাঁদের পানে চাও, নিজেকে পরি মনে হবে। মাটির সবুজ ঘাসের পানে চাও, নিজেকে ছাগল মনে হবে।

বোকা বানানোর স্ট্যাটাস

ফেসবুকে আমরা বিভিন্ন সমাধান দেখতে পাই যেগুলো প্রথমে অনেক আগ্রহ নিয়ে পড়ে কেননা শুরুতে অনেক আকর্ষণীয় বিষয়বস্তু থাকে। এরপর আপনি নিজে যাওয়ার পরে দেখবেন হঠাৎ করে আপনাকে গোল খাইয়ে দিয়েছে এবং আপনি বোকা বনে গিয়েছেন। আজ আমরা আপনাদের মাঝে এ ধরনের কয়েকটি facebook স্ট্যাটাস শেয়ার করব আশা করি আপনাদের কাছে ভালো লাগবে। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক ফেসবুকে ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর স্ট্যাটাস গুলো কি কি।

“আজকে একটি প্রশ্ন মনে হচ্ছে, ‘কি যে আমি সবসময় বোকা হচ্ছি?'”

“আমি একটা প্রশ্ন সেট করেছি নিজের উদ্দেশ্যে, কি তুমি বোকা বলতে চাও?

 আমি আমার এক বন্ধুর বাসায় বেড়াতে গেলাম। রাতে ঘুমের ঘোরে দেখলাম আমাকে চুমু দিচ্ছে। আমি সহ্য করতে না পেরে উঠে মশা মেরে আবার ঘুমিয়ে পড়লাম। আপনারা কি ভেবেছিলেন??

ফুলের মাঝে ভ্রমর আসে, নদীর ওপর নৌকা ভাসে, শিশির নাচে সবুজ ঘাসে, রাতের মাঝে জোছনা হাসে। আর কিছু মেয়েদের ভালোবাসায় ফরমালিন আছে। 

রোগ হলে ডাক্তারের কাছে যাও। কারণ ডাক্তার কে খেয়ে বাঁচতে হবে। ঔষধ কেনো, কারণ দোকানদার কেও খেয়ে বাঁচতে হবে। কিন্তু তুমি ঔষধ খেওনা,, কারণ তোমাকেও বাঁচতে হবে।  

এখন আমার হাতে এক বোতল বিশ। আমি মুক্তি পেতে চাই এতো জালা আমার আর এখন সহ্য হয় না। জানি এটা পাপ। এতো যন্ত্রণা আর ভালো লাগে না। তাই যাচ্ছি ইদুর মারতে।  

সে আসলো, আমার উপর বসলো, আমাকে জড়িয়ে ধরলো, পরে কামর, চুমু দিল। তারপর নিজের প্রয়োজন মিটিয়ে চলে গেল। খারাপ চিন্তা ভাবনা বাদ দিয়ে ভালো চিন্তা ভাবনা কর। ঐটা একটা মশা ছিল।

আমি আমার এক বন্ধুর বাসায় বেড়াতে গেলাম। রাতে ঘুমের ঘোরে দেখলাম আমাকে চুমু দিচ্ছে। আমি সহ্য করতে না পেরে উঠে মশা মেরে আবার ঘুমিয়ে পড়লাম। আপনারা কি ভেবেছিলেন??  

 সিগারেট আর মেয়েদের মধ্যে অনেক মিল। যেমন:- সিগারেট ছেলেদের ঠোঁট পুড়িয়ে কালো করে দেয়। আর মেয়েরা ছেলেদের ভালোবাসার ছলনায় ফেলে অন্তর পুড়িয়ে ছাই করে দেয়।  

(হ্যাঁ/না) দিয়ে নিচের শূন্যস্থান পুরণ কর। 1/– আমি মানুষ না। 2/— আমি ফাজিল। 3/– আমার মতো পাগল আর নাই। 4/– আমি বেকুব। 5/–আমি গাধা।  

ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর জোকস

যারা মানুষকে হাসাতে পছন্দ করেন এবং সেই সাথে আশানুর মাধ্যমে বোকা বানাতে চান তারা চাইলে নিচে থাকা ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর জোকস গুলো ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যদি কোন মানুষকে বোকা বানান স্বাভাবিকভাবে সে আপনার উপর একটু বিরক্ত হবে কিন্তু  আপনি যদি সেই সাথে তাকে হাসাতেও পারেন তবে সেই রাগ মুহূর্তে পানি হয়ে যাবে। তাহলে চলুন আর দেরি না করে দেখে নেওয়া যাক জোকস গুলো কি কি।

তুমি আমার অচিন পাখি তোমার নাম টিয়া সুন্দর একটা বাদর পেলে তোমার দিতাম বিয়া। “””কপাল আর লুঙ্গীর মধ্যে মিল কোথায়? দুটোই যেকোনো সময় খুলে যেতে পারে !কপাল খুললে পৌষ মাস,আর লুঙ্গী খুললে সর্বনাশ। 

হিমালয়”থেকে নয়.ওই দুর “আকাশ”থেকেও নয়.”সাত সাগর”13 নদীর”ওপার থেকে ও নয়.এই “হৃদয়ের”গভীর থেকে বলছি,ভিশন ‘ঠান্ডা’লাগতাছে! 

ছেলে: “তুমি মেয়েরা কিন্তু অনেক ভুল কর।”
মেয়ে: “তোমার মন্তব্যটা আমি মিস করেছি, তুমি কি বলতে চাচ্ছিলেন আমি আজকে কি পরেছি?” 

ছেলে: “তোমার মনে হচ্ছে আমি কখনও প্রশ্নের উত্তর দিতে পারব না?”
মেয়ে: “অবশ্যই, যদি তুমি আমার কাছে এতো বোকা প্রশ্ন না করতে।” 

ছেলে: “তুমি মেয়েদের বোকা বললে আমি কোন নাম্বারে আসব?”
মেয়ে: “হ্যাঁ, তার পরিবর্তে একটা ফোনবুক নাম্বার দিতে পারো?” 

ছেলে: “তোমার সাথে হাস্যকর একটা নামকরণ আছে।”
মেয়ে: “কি? কী নামে?” 

ছেলে: “তুমি মেয়েদের কি ভালোবাসো?”
মেয়ে: “হ্যাঁ, অবশ্যই, এমন সব মেয়েকে যারা তোমার বোকা জোকস শুনতে পারে।” 

ছেলে: “তোমার সাথে একটা জোকস শেয়ার করতে চাই।”
মেয়ে: “অবশ্যই, তাহলে বলো, ‘তুমি কি একটা বোকা?'” 

ছেলে: “তুমি তোমার নিজের জন্য একটা বোকা খুঁজতে হবে না।”
মেয়ে: “অন্যের জন্য তো আমি আমার নিজের বোকামি খুঁজতে যাই।” 

ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর এসএমএস

ভালোবাসার মানুষটিকে সবাই মাঝে মাঝে একটু একটু বোকা বানাতে চেষ্টা করে অথবা বোকা বানিয়ে থাকে। সেটা হতে পারে এসএমএসের মাধ্যমে। তাই আজ আমরা আপনাদের মাঝে ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর এসএমএস শেয়ার করব। প্রত্যেক মানুষতো প্রেমিকাকে নানার সময় এসএমএস এর মাধ্যমে একটু রাগানোর চেষ্টা করে এবং সেজন্য বোকা বানিয়ে থাকে। আর তাদের এই দুষ্টু মিষ্টি লাগে তৈরি হয় মধুর ভালোবাসা। তাই আজ আমরা আপনাদের মাঝে এই ধরনের কয়েকটি এসএমএস শেয়ার করবো যেগুলো মাধ্যমে আপনি খুব সহজে আপনার কাছের মানুষটিকে বোকা বানাতে পারবেন।

তুমি মেঘনা হলে আমি হব মেঘনার ব্রিজ, তুমি চায়ের কাপ হলে আমি হব চায়ের পিরিচ, তুমি জীবন হলে আমি হব প্রেম, তুমি দরজা হলে আমি হব দরজার ফ্রেম।

ওরে মর কথা শোন,,, যাব চল বান্দরবন,, বানরের মতো ঝুলবি নাকি বল? ওরে আমায় বাচাও একটা বান্দর আমার পিচু নিয়েছে, সে হলো যে আমার পাঠানো মেসেজ পড়ছে।

আমাদের দেশে হবে সেইমেয়ে কবে, মিসকল না দিয়ে,,,, ডাইরেক্ট কল দিবে ,,,, ১০ জনকে মন না দিয়ে ১ জনকে দিবে, সারা জীবন একজনকে ভালোবেসে যাব.

“আমি একটা বোকা! তুমি একটা বোকা! আসলে সবাই বোকা! এখন এই এসএমএস পড়ছো, তাহলে তুমি হয়তো কোন বোকা না! পরীক্ষা করে দেখো বোকা কোন আপেক্ষিক বোকার প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছে! হা হা হা!”

এই পাঠে খেলার মাত্রা ও প্রেমিকার বোকা বানানোর ভাবনা রয়েছে। সাহায্য করে নিয়ে নিতে পারে।

ছেলে: “তুমি অনেক সুন্দরী, মনে হচ্ছে একটা প্রশ্ন আমার মাথায় বিচ্ছিন্নতা ছড়িয়ে দিলো! তুমি কি আমার বোকা?”

মেয়ে: “তোমার মনে হয় আমি কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে পারব না?”
ছেলে: “অবশ্যই, যদি তুমি আমার কাছে এতো বোকা প্রশ্ন না করতে!”

ছেলে: “আমি একটি বোকা! তুমি একটা বোকা! সবাই একটা বোকা! এখন এই এসএমএস পড়ছে, তাই আমার তো নতুন একটা বোকা ফ্রেন্ড হয়ে যাবে!”

ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর প্রশ্ন

এবার আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব বর্তমানে সব থেকে বেশি জনপ্রিয় এবং সবথেকে বেশি ব্যবহৃত কয়েকটি ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর প্রশ্ন। আপনি যখন আপনার বন্ধুদের কে নিয়ে আড্ডা দেবেন তখন চাইলে আপনি পথ আসলে হঠাৎ করে এসব প্রশ্ন করে বুঝতে পারেন দেখবেন অটোমেটিক বোকা হয়ে যাবে। আমরা আপাতত আপনাদের মাঝে অল্প কিছু ছেলে মেয়েদের বোকা বানানোর প্রশ্ন শেয়ার করছে। পরবর্তীতে আপনাদের চাহিদা অনুযায়ী এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা হবে।

কোন খানা খাওয়া যায়না?
উ:-কারখানা।
কোন বরের বিয়ে হয়না?
উ:-খবরের।
কোন তাল খাওয়া যায়না?
উ:-হরতাল।
যে পানি খাওয়া যায় না?
উ:- হ্যাপানি।

আপনে একটা গরু না,একটা ছাগল, না একটা ভেড়া.না না না বাজারথেকে একটা দেশী মুগরী কিনে আমাকে দাওয়াতদিয়ে খাওয়াবেন।

এ দুটি চোখে স্বপ্ন ছিলমনে ছিল আশা।গরুরঘরে থাকবে তুমি মারবে অনেকমশা। ভাবনা ছিলখাবে তুমি রাস্তা ঘাটে মার, কেন তুমি চলে গেলে গরুনিয়ে আমার!

আশা করি আর্টিকেলটা আপনাদের ভালো লেগেছে এ ধরনের আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েব সাইটে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন এবং আপনি যদি আমাদের ওয়েবসাইটটি সাবস্ক্রাইব করে থাকেন তবে আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
রিয়া আক্তার
আমি রিয়া আক্তার। মেয়ে পটানোর থেরাপি ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেল আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে লিখেছি। আমি চাই প্রত্যেকটা মানুষ যাতে তার প্রিয়জনের কাছে তার ভালোবাসার কথা বলতে পারে ও প্রিয় জনকে ভালবাসতে পারে।