1. riyaakhter747@gmail.com : Riya Akther : Riya Akther
কিভাবে বুঝবেন মেয়েটি আপনাকে ভালোবাসে কিনা
মেয়েটি আপনাকে ভালোবাসে কিনা
কিভাবে বুঝবেন মেয়েটি আপনাকে ভালোবাসে কিনা

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব কিভাবে বুঝবেন আপনাকে মেয়েটি ভালোবাসে কিনা। অনেকেই আছেন যারা এই কনফিউশনে থাকেন যে, আপনার পছন্দের মানুষটি আপনাকে ভালবাসে কিনা? নাকি শুধুমাত্র টাইম পাস করছে? অনেক সময় দেখা যায় যে আপনি হয়তো একটি মেয়ের সাথে রিলেশন করেন। কিন্তু বুঝতে পারছেন না যে, মেয়েটি আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে? নাকি আপনার ভালোবাসার মানুষের শুধু মাত্র আপনার সাথে অভিনয় করতেছে অথবা শুধুমাত্র টাইম পাস করতেছে আপনার সাথে?

কিভাবে বুঝবেন আপনাকে মেয়েটি ভালোবাসে কিনা

অতএব আপনার এ কনফিউশন দূর করতে আমরা আজ আপনাদের সাথে  হাজির হয়েছি। আসলে আপনি চাইলে এই বিষয়টি মাত্র এক মিনিটেই সনাক্ত করতে পারেন। শুধু আপনি যদি এই ৫টি কৌশল একবার অবলম্বন করেন। তো সেই কৌশল নিয়ে আজ আমরা আপনাদের সাথে আলোচনা করব। আজকে মূলত আমরা আপনাদের মাঝে ৫টি পয়েন্ট শেয়ার করব। এই পয়েন্ট গুলো যদি আপনার গার্লফ্রেন্ডের মাঝে থাকে তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন যে, সত্যি আপনার ভালোবাসার মানুষকে আপনাকে সত্যিই ভালোবাসেন। তাহলে চলার দেরি না করে দেখে নেওয়া যাক পয়েন্টগুলো কি কি?

তার আগে বলে রাখি আপনাদের সুবিধার্থে আমার একটি ভিডিও এড করে দিয়েছি। যেখানে কিভাবে বুঝবেন মেয়েটি আপনাকে ভালোবাসে কিনা সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি চাইলে পুরো ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন এছাড়া আমরা নিচে এ বিষয়ে বিস্তারিত ধাপে ধাপে বর্ণনা করেছে। আপনি চাইলে পুরো আর্টিকেলটি পড়তে পারেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

এছাড়া মেয়েটির আপনাকে যদি সত্যি ভালোবেসে থাকে তবে আপনি মেয়েটির মধ্যে আরো কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণ দেখতে পাবেন সে সম্পর্কে নিচে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

নাম্বার ১ আপনাকেও অযথা খরচ করাবে না

আজকে গার্লফ্রেন্ড রাখা মানে হল একসাথে দুই বউয়ের সংসার চালানো। আজকাল বয়ফ্রেন্ডকে মেয়েরা মনে করে এটিএম কার্ড যত ইচ্ছা তত খরচ করে না। কিন্তু এসব জিনিসের মাঝে একটি জিনিস আজও সত্য। ৯৫ পারসেন্ট মেয়েরা যাকে সত্যিকারে ভালোবাসে তার টাকা নষ্ট করে না। বয়ফ্রেন্ডকে কোন বাড়তি খরচ করতে দেয় না এবং সে নিজেও বাড়তি খরচ করিয়ে নেয় না। আমি আমার আশেপাশে অনেক মেয়েকে লক্ষ্য করে দেখেছি যে মেয়েটি ছেলেদের থেকে প্রেমে করে শুধুমাত্র টাকা খসানোর ধান্দা করতো।  সেই মেয়েটি যখন কোন ছেলেকে মন থেকে ভালোবেসে ফেলে তখন সেই মেয়েটি তার বয়ফ্রেন্ড কে বাড়তে খরচ করতে গেলে ধমক দিত।  আর বয়ফ্রেন্ড তার জন্য ছোট কোন গিফট কিনে আনলে অযথা খরচ করেছ কেন? এমন বলে শাসন করতো এটাই বাস্তবতা। 

কাজেই যদি আপনার প্রিয় মানুষ যে আপনাকে বাড়তে খরচ না করায়। আপনার টাকা খাওয়ার প্রতিটা যদি কোন লোভ না থাকে। তাহলে আপনি ভেবে নিতে পারেন। যে মেয়েটি আপনাকে সত্যি ভালবেসে ফেলেছে। 

পয়েন্ট নাম্বার ২ আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবনা থাকবে 

একটি মেয়ে যখন আপনার সাথে রিলেশন করবে এবং আপনাকে বিয়ে করার কথা ভাবে এবং আপনাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখবে। তখন সেই মেয়েটি সবসময় আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে টেনশন করবে। মেয়েটি সবসময় চাইবে আপনি যেন একটি ভালো ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারেন। যাতে করে আপনি ভালো একটি জব পান এবং জীবনে ভালো কিছু করতে পারেন। আপনি যেন নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারেন ইত্যাদি ইত্যাদি।

এই টেনশন গুলো মেয়ের মাথায় সব সময় থাকে। তখন দেখবেন যে মেয়েটি আপনাকে জব করার জন্য বা ভালো কিছু করার জন্য সব সময় উৎসাহ দিবে। বিভিন্নভাবে চাপ দেবে। আপনাকে প্রতিষ্ঠিত করতে, ভালো কিছু করতে সর্বাত্মক হেল্প করবে এবং সাপোর্ট দিবে। সুতরাং আপনার প্রিয় মানুষটি যদি এমন করে তবে আপনি ১০০% সিওর হয়ে যান যে সেই মেয়েটি আপনাকে সত্যিকারের ভালবাসে।

পয়েন্ট নাম্বার ৩ আপনার ফ্যামিলি সম্পর্কে ইন্টারেস্ট

যখন কোন মেয়ে কাউকে বিয়ে করার কথা মাথায় আনে, তখন তার সবচেয়ে বেশি কৌতুহল জাগে তার শ্বশুর বাড়ি নিয়ে। তার শ্বশুরবাড়ি কেমন শ্বশুর শাশুড়ি কেমন এবং তার বাসায় কে কে আছে ইত্যাদি সম্পর্কে সব সময় জানতে চায় এবং তাদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সব সময় জানার আগ্রহ দেখায়। আপনার বাসার সবাই কে কি করে? কে কেমন ইত্যাদি আরো অনেক কিছু। কারণ এদের মাঝে তো তাকে সংসার করতে হবে তাই সে জানতে চায়।

মেয়েটি সুযোগ পেলে আপনার পরিবার সম্পর্কে জানতে চায় বা আপনি এসব ব্যাপারে একটু কথা তুললে মেয়েটি এগুলো শুনতে আগ্রহ দেখায়। আপনার সাথে কথা হলে মনে করে অবশ্যই আপনার ফ্যামিলির সবার খোঁজ খবর নেয়। আর হ্যাঁ আপনার ফ্যামিলির লোকজনদের সাথে যোগাযোগ করা বা ভালো  সম্পর্ক তৈরি করার জন্য মেয়েটি সবসময় চেষ্টা করবে। যেমন- আপনার পরিবার যদি কোন ছোট ভাইবোন থাকে বা পরিবারের কোনো সদস্য থাকে যার বয়স কম তার সাথে মেয়েটি পরিচিত হতে এবং কথা বলতে আগ্রহ দেখাবে।

কাজে বুঝতে পারছেন আপনার প্রিয় মানুষটি যদি এমন হয় তাহলে পাক্কা ধরে নিবেন সে আপনাকে সিরিয়াসলি ভালোবাস।

পয়েন্ট নাম্বার ৪ বন্ধু বান্ধবীকে আপনার সম্পর্কে জানাবে 

মেয়েটি যদি  সত্যিকারে আপনাকে ভালোবেসে থাকে তবে আপনার সম্পর্কে সেটা বন্ধু-বান্ধবীকে জানাবে এবং পাশাপাশি আপনার সাথে তাদেরকে পরিচিত করে দেওয়ার চেষ্টা করবে। একটা বিষয় আপনি সবসময় লক্ষ্য করবেন যখন কোন ছেলে বা মেয়ে কাউকে সত্যিকারে ভালোবাসে অর্থাৎ কেউ যখন সিরিয়াসলি কোন রিলেশন করে। তখন সেটির ব্যাপারে তার বন্ধু-বান্ধবকে জানাতে পছন্দ করে। বিষয়টা খুব অল্প সময় পরিচিত সবাই জেনে যায়।

কিন্তু যখন কেউ টাইম পাস বা ইনজয় করার জন্য রিলেশন করে তখন সব সময় চেষ্টা করে ব্যাপারটা সবার থেকে গোপন রাখে। তখন চেষ্টা করা হয় যেন ব্যাপারটা আড়ালে শুরু হয় এবং আড়ালে শেষ হয়ে যায়। এর থেকে বেশি দূর যেন বিষয়টা না গড়ায়। তাই লক্ষ্য করুন আপনার গার্লফ্রেন্ড যদি আপনাদের রিলেশনের ব্যাপারটা সবার থেকে গোপন বা আড়ালে রাখতে বেশি পছন্দ করে তাহলে ভেবে নিবেন সে আপনাকে সত্যিকারে ভালোবাসেন।

আর আপনি চাইলে ব্যাপারটি আরো কনফার্ম হওয়ার জন্য একটি কাজ করতে পারেন। আপনি নিজে থেকেই মেয়েটির ফ্যামিলির মেম্বারদের সাথে পরিচিত হতে আগ্রহ দেখাবেন। মেয়েটি কোন ভাবে রাজি না বা কোন ভাবে তার ফ্যামিলি কারো সাথে পরিচিত হতে আপনাকে না দেয়। তাহলে ১০০% ভেবে নিন আপনি ধোঁকা খেয়েছেন।

নাম্বার ৫ আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলবে এবং আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাববে

মেয়েটি যদি সত্যি আপনাকে ভালোবাসে তবে অবশ্যই সে আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে সবসময় চিন্তা করবে এবং আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাববে। কেননা যখন কেউ কাউকে সত্যিকারে ভালোবাসে তখন সেই ভালোবাসার মানুষটিকে নিয়ে হাজারো স্বপ্ন দেখে। সে স্বপ্ন গুলোর মধ্যে অধিকাংশ ভবিষ্যৎ কেন্দ্রিক হয়ে থাকে। যেমন বিয়ের পর এটা করব, ওটা করব, সেটা করবে ইত্যাদি ইত্যাদি। কয়টি বেবি নেব ? এমনকি বেবি গুলো নামও অনেক সময় ঠিক করে ফেলে। এ কথা তো আপনার বিশ্বাস হচ্ছে না কিন্তু এমনটা সত্যি সত্যি হয়ে থাকে। এ সম্পর্কিত আরো অনেক শত শত স্বপ্ন দেখে এবং সে স্বপ্নগুলো নিয়ে একে অপরের মধ্যে আলোচনা করে থাকে। 

কিন্তু যখন কোন মেয়ে কারো সাথে টাইম পাস করে। তখন নিজে থেকে তো এমন ভবিষ্যৎকে নিয়ে কোন আলাপ করেই না। আপনি যদি এমন আলাপ করেন তবে সে এই বিষয়টি সম্পূর্ণ এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বা এড়িয়ে যায়। কারণ সে ভালো করে জানে এ সম্পর্কে কোন ভবিষ্যৎ নেই। কাজেই লক্ষ্য করুন আপনি যদি আপনার প্রিয় মানুষটির মাঝে এমন কোন ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখতে না পান তাহলে বুঝে নেন আপনাদের সম্পর্কে কোন ভবিষ্যৎ নেই।

উপরে আমরা আপনাদের মাঝে যে পাঁচটি কৌশল শেয়ার করেছে এগুলো আপনি আপনার গার্লফ্রেন্ডের মধ্যে আছে কিনা, যাচাই করে নিন আশা করি আপনি বুঝতে পারবেন যে, সে আপনাকে সত্যিকারে ভালোবাসে কিনা বা টাইম পাস করছে কিনা? আর্টিকেলটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
Riya Akther
আমার নাম রিয়া আক্তার। আমি একজন স্টুডেন্ট। মেয়ে পটানোর থেরাপি সম্পন্ন ব্যতিক্রমধর্মী একটি ওয়েবসাইট। আমি মূলত মেয়ে পটানোর থেরাপির ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেল লিখেছি। আমি আমার আর্টিকেলে আপনাদের মাঝে যেসব আইডিয়া শেয়ার করেছি এগুলো মূলত আমার বন্ধু বান্ধব ও বান্ধবীদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে নিয়েছি। আমার এই ওয়েবসাইটে কাজ করার উদ্দেশ্য হচ্ছে উদ্দেশ্য হচ্ছে যাতে করে সবাই তার ভালোবাসার মানুষের কাছে তার মনের কথা খুব সহজে জানাতে পারে এবং আমার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আমি যাতে আপনাদের ভালোবাসার মানুষটিকে পেতে আপনাদেরকে সকল ধরনের সাহায্য করতে পারি।