1. riyaakhter747@gmail.com : Riya Akther : Riya Akther
মেয়েদের ফোন নাম্বার নেওয়ার উপায়
মেয়েদের ফোন নাম্বার নেওয়ার উপায়
মেয়েদের ফোন নাম্বার নেওয়ার উপায়

হ্যালো বন্ধুরা সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব। অনেকেই আছেন যারা নিজের পছন্দের মানুষটিকে নানাভাবে পটানোর চেষ্টা করছেন এবং তার মোবাইল নাম্বারটা নেওয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু বারবার ব্যর্থ হচ্ছেন। তো কি করে মেয়েদের নাম্বার নিতে হয় সে উপায়  সম্পর্কে বিস্তারিত আজ আমরা আপনার সাথে আলোচনা করব।

পুরো বিষয়টি বিস্তারিতভাবে যাতে আপনার খুব সহজে বুঝতে পারেন পরবর্তীতে আমরা আরো কয়েকটি উপায় নিয়ে একটি ভিডিও তৈরি করব এবং তা আপনাদের মাঝে শেয়ার করব। এছাড়া আমরা পুরো আর্টিকেলটি দুইভাবে নিচে বর্ণনা করেছে। আপনি চাইলে পড়ে নিতে পারেন এবং এরপরও যদি আপনার কোন সমস্যা থেকে থাকে তবে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন আমরা দ্রুত আপনার সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করব।

মেয়েদের ফোন নাম্বার নেওয়ার উপায়

আজকে আর্টিকেল এর মূল বিষয় হচ্ছে কিভাবে মেয়েদের নাম্বার নিতে হয়। আসলে যে কোন মেয়ের থেকে হুট করে নাম্বার চাইলে তো চাওয়াই যায়। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে আপনি যেমন ভালোমতো না ভেবে হুট করে নাম্বার চেয়ে বসেন। তেমনি মেয়েরা কোন কিছু না ভেবে হুট করে আপনার মুখের উপর না বলে দেয়। তাই প্রসঙ্গ হচ্ছে মেয়েদের থেকে কখনো নাম্বার চাইলে বা কিভাবে নাম্বার পাওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি? আজকে আমরা সেটা নিয়ে আলোচনা করব। এ সংক্রান্ত একটা ভিডিও আমার নিচে এড করে দিয়েছি আপনি যেটা দেখে নিতে পারেন। 

তার শুরুতেই আমরা কিছু কথা বলতে চাই সেটি হচ্ছে, যে কোন মেয়েরই নাম্বার নিতে গেলে আপনাকে অবশ্যই দুটো জিনিস আগে জানতে হবে।

  • মেয়েটির কাছ থেকে কখন নাম্বার চাইতে হবে। 
  • কিভাবে নাম্বার মেয়েটির কাছ থেকে চাইতে হবে।

এই দুইটি জিনিস যদি আপনি খুব ভালোভাবে শিখতে পারেন তাহলে আপনার আর কিছু জানতে হবে না। আমি ১০০% গ্যারান্টি দিলাম আপনি যে কোন মেয়ের কাছ থেকে খুব সহজেই এই দুটি উপায় কাজে লাগিয়ে নাম্বারটি নিতে পারবেন। আর্টিকলের প্রথম অংশে আমরা আপনাদের সাথে আলোচনা করব কখন নিজে কাছ থেকে নাম্বার চাইতে হবে এবং পরবর্তীতে আমরা দ্বিতীয় ভাগে আলোচনা করব কিভাবে মেয়েদের কাছ থেকে নাম্বার চাইতে হবে। 

এছাড়া মেয়ে পটানো নিয়ে এরকম আরো মজার মজার টিপস এন্ড ট্রিকস পেতে আমাদের ওয়েবসাইটে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন এবং আপনি চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজেও যুক্ত হতে পারেন। তাহলে চলুন আর দেরি না করে শুরু করা যাক।

মেয়েদের কাছ থেকে কখন নাম্বার চাইতে হবে
একটা নির্দিষ্ট সময় যাওয়ার পর আপনি মেয়েদের কাছ থেকে নাম্বার চাইতে পারেন। তখন মেয়েরা নাম্বার দেবে। অর্থাৎ মেয়েটির সাথে পরিচিত হওয়া এবং এটি বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক কয়েকটি ধাপ পার করার পর আপনি খুব সহজে মেয়েটির কাছ থেকে নাম্বার চাইতে পারেন। তখন আর মেয়েটি মুখের উপর আপনাকে না বলতে পারবে না। তাহলে চলুন আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক কখন মেয়েদের কাছ থেকে নাম্বার চাওয়া যায়।
মেয়েটির সাথে আগে আপনার পরিচিত হতে হবে
 অবশ্যই যেকোনো মেয়ের নাম্বার পেতে গেলে আপনাকে অবশ্যই আগে মেয়েটির সাথে একটু হলেও পরিচিত হতে হবে।তা ছাড়া কোন অপরিচিত মেয়ে কোন দুঃখে আপনাকে নাম্বার দিতে যাবে । একবার আপনি আপনার বিবেকে প্রশ্ন করুন। আপনি যদি একটা অপরিচিত মেয়ের কাছ থেকে হুট করে নাম্বার চান তাহলে কি সে কখনোই আপনাকে নাম্বার দিবে? জীবনেও সেই মেয়েটি আপনাকে নাম্বার দিবে না। বরং মেয়েটির রীতিমতো আরো ভয় পেয়ে যাবে। তাই যে কোন মেয়ের কাছে আপনি নাম্বার আশা করতে পারেন না। যখন আপনি তার সাথে একটি বন্ধুসুলভ সম্পর্ক তৈরি করতে পারবেন। তখন আপনি সেই মেয়েটির কাছে নাম্বার চাইতে পারেন। এছাড়া কোন মেয়ের নাম্বার নেওয়ার জন্য পরিচিত হওয়াটা কতটা জরুরি তা আমি আপনাকে দুই ভাবে বুঝিয়ে বলছি। 
মেয়েটিকে আপনার সাথে কমফোর্টেবল ফিল করান
অর্থাৎ মেয়েটি যতক্ষণ পর্যন্ত না যতদিন পর্যন্ত আপনার সাথে চলাচল করতে এবং কথা বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ না করে। তার আগ পর্যন্ত আপনি কোন ভাবে মেয়েটির কাছ থেকে ভুলেও নাম্বার চাইতে যাবেন না। চাইলে জীবনেও মেয়েটি আপনাকে নাম্বার দেবে না ১০০% গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি। তাই মেয়েটির সাথে যথেষ্ট পরিমাণ কথা এবং যার মেয়েটির কাছে এমন ভাবে কথা বলুন যাতে করে ধীরে ধীরে আপনাদের মধ্যে একটি বন্ধুসুলভ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। স্বাভাবিকভাবে প্রত্যেকটি প্রথম প্রথম অপরিচিত ছেলের সাথে কথাবার্তা বলতে সংকোচ বোধ করে এবং ধীরে ধীরে সেই সংকোচ টা কেটে যায়।

এখন আপনার মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে মেয়েদেরকে কিভাবে কম টেবিল করবেন? মেয়েদের সাথে কিভাবে ফ্রি হয়ে কথা সে বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি পাঁচ নাম্বার স্টেপে

মেয়েটির বিশ্বাস অর্জন করুন

এই পয়েন্টের গুরু তো সব থেকে বেশি। কারণ মেয়েরা যে ছেলেকে জীবনে নাম্বার দেয় না তারা হলো মেয়েরা যাদেরকে কখনোই বিশ্বাস করতে চায় না বা করে না।  আরে বন্ধু তুমি এটা বাবা মেয়েটি তোমাকে ভাল মত চিনে না জানে না তুমি ভালো না খারাপ তুমি কি উদ্দেশ্যে নাম্বার নিচ্ছ।  তুমি নাম্বার নিয়ে বাজে কোন কাজ করবে কিনা, সেটাও জানে না তুমি নাম্বার অন্যদিকে বিতরণ করবে কিনা।  এমনকি তোমাকে নাম্বারটা দিলে তুমি ডিস্টার্ব করবে কিনা সেটাও জানে না।  তো মেয়েটি কে কি পাগল কুত্তায় কামড়িয়েছে যে তোমাকে নাম্বার দিবে। তাই তুমি আগে বিশ্বাস অর্জন করতে করে তুমি ভরসা অর্জন করত পার এবং তোমাকে নাম্বারটা দিতে পারে।

আপনি মেয়েটির এতোটুকু বিশ্বাস অর্জন করেন যাতে করে মেয়েটি কাছে আপনি যখন নাম্বার চাইবেন তখন মেয়েটি অন্তত আপনার উপর এই ভরসা করতে পারা যে আপনি নাম্বারটি কাউকে শেয়ার করবেন না অথবা তাকে বিরক্ত করবেন না। তাই বলে আপনারা এটা ভেবেন না যে আপনার যখন মেয়েদের কাছে নাম্বার চাইবেন তখন তাদেরকে কসম করে বলবেন আমি তোমার কোন ক্ষতি করব না। কাজ হয়ে গেল আপনি সাকসেস। এই চিন্তা মাথা থেকে জেরে ফেলুন কারণ কারো প্রতি বিশ্বাস মুখে বললেই আসে না। বিশ্বাস অর্জন করে নিতে হয়। কোন মেয়ের নাম্বার পেতে গেলে অবশ্যই আপনাকে এই তিনটি স্টেপ আগে মেনে চলতে হবে।

মেয়েটিকে বুঝান আপনি সবার থেকে আলাদা

মনে করেন আপনি কোন মেয়ের কাছ থেকে নাম্বার চাইতেছেন নিশ্চয়ই এর আগে অনেক ছেলে ওই মেয়েটির কাছ থেকে নাম্বার চেয়েছে। তো ধরুন মেয়েটি তাদেরকে নাম্বার দেয়নি। তো আপনাকে কেন দিবে আপনি তাদের থেকে কি এমন আলাদা যে সে অন্যদেরকে দেয়নি বাট আপনাকে অন্য ছেলেদের থেকে আলাদা মনে করে আপনাকে নাম্বার দিবে কেন। এজন্য আপনাকে অবশ্যই মেয়েটির সামনে নিজেকে এমন ভাবে উপস্থাপন করতে হবে যাতে অন্য ছেলেদের থেকে আপনাকে মেয়েটির সামনে আলাদা মনে হয়। মেয়েটির সাথে সব সময় অন্য ছেলেদের থেকে আলাদা আচরণ করতে হবে। যাতে করে মেয়েটির আপনাকে অন্য সকল ছেলের থেকে আলাদা এবং স্পেশাল মনে হয় এবং আপনি যখন তার কাছ থেকে নাম্বার চাইবেন তখন জানি মেয়েটির মনে হয় আসলে এই ছেলেকে নাম্বার দেওয়া যায়। 

সহজ কথায় বললে মেয়েরা মনে করে এক কোয়ালিটি ছেলে আছে যারা একটু সুযোগ পেলে মেয়েদের নাম্বার চেয়ে বসে।  তো মেয়েটি যদি আপনার মনে করে আপনি সেই কোয়ালিটির তাহলে গ্যারান্টি দিলাম জীবনেও নাম্বার দিবে না। তাই সব সময় নিজেকে মেয়েটির সামনে আলাদাভাবে তুলে ধরুন।

মেয়েটির কাছে নিজেকে মজাদার মানুষ হিসেবে তুলে ধরুন

মনে করুন আপনি বাসে করে কোথাও যাচ্ছেন তো বাসে একটা লোকের সাথে আপনার পরিচয় হলো এবং তো পরিচয় হতেই সেই লোকটি আপনার সাথে আজেবাজে প্যাচাল শুরু করে দিল। বোরিং যত টপিক আছে তা নিয়ে আপনার সাথে কথা বলেই যাচ্ছে। আপনি বিরক্ত হচ্ছেন বাট মুখে তো কিছু বলতে পারতেছেন না। তো সেই লোকটা যদি বাস থেকে নামার সময় আপনাকে বলে ভাই আপনার নাম্বারটা দেন আমি আপনার সাথে পরে আর কথা বলব। তো আপনি কি নাম্বার দিতে চাইবেন অবশ্যই চেষ্টা করবেন কিভাবে তার কাছ থেকে নাম্বার না দিয়ে বেঁচে যাওয়া যায়।

কিন্তু সেই লোকটি যদি এমন না হয় এবং একজন মজার মানুষ হয়। সেই লোকটি আপনার সাথে মজার মজার কথা বলতেছে। আপনি তার সাথে পরিচিত হয়ে কথা বলে অনেক মজা পাচ্ছেন। আর এমন সময় লোককে বাস থেকে নামার সময় যদি আপনার থেকে নাম্বার চায় তো আপনি অবশ্যই  নাম্বার দিবেন। অনেক সময় এমনটি হতে পারে যে লোকটি যাওয়ার আগে আপনি তাকে নিজে নিজের নাম্বারটি দিয়ে দিলেন। তাই মেয়েদের কাছ থেকে নাম্বার পেতে গেলে আপনাকে মেয়েটির কাছে নিজেকে আগে মজাদার মানুষ হিসেবে তুলে ধরতে হবে। তারপর যদি আপনি নাম্বার চান তবে ৯৯% শিওর থাকেন মেয়েটি আপনাকে নাম্বার দিয়ে দেবে। তাই এখন থেকে মেয়েদের সাথে মজাদার কথা বলার অভ্যাস করুন।

মেয়েটিকে আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহী করে তুলুন
নিজের বিবেককে প্রশ্ন করুন মেয়েটি যদি নিজে থেকে আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহী না হয়ে থাকে তো আপনাকে কেন যে নাম্বার দিতে যাবে। কেননা নাম্বার তো একজন মানুষ তখনই দেয় যখন সে ভবিষ্যতে আরো বেশি তার সাথে কথা বলতে আগ্রহী হয়ে থাকে। তো মেয়েটি বর্তমানে আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহী নয় তো নাম্বার দিয়ে কেন ভবিষ্যতে কথা বলার জন্য আগ্রহ দেখাবে। এমন হয়তো বলতে পারেন কিভাবে বুঝবেন যে মেয়েটি আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহী। আরে বন্ধু কারো সাথে কথা বলে বোঝা যায় সে নিজে আগ্রহী থেকে কথা বলতেছে? নাকি আপনি কথা বলতেছেন তাই সে কথা বলতেছে? আর আমার মতে শুধুমাত্র মেয়েদের চোখের দিকে তাকিয়েও এটা বোঝা সম্ভব যে মেয়েটি আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহ কিনা। তাই মেয়েটিকে যতদিন না পর্যন্ত আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহ করে তুলতে পারছেন ততদিন পর্যন্ত আপনি মেয়েটির কাছে নাম্বার চাইবেন না। মেয়েরা যদি আপনার সাথে কথা বলতে আগ্রহ হয়। তাহলে তবে আপনি একবার মেয়েটির কাছে নাম্বার চেয়ে দেখুন। ১০০% গ্যারান্টি দিলাম মেয়েটি আপনাকে নাম্বার দিয়ে দিবে।

মেয়েটিকে বুঝে না আপনি নাম্বার নিতে আগ্রহী না

আপনার মেয়েটিকে আগে বুঝাতে হবে যে আপনি মেয়েটির কাছে নাম্বার নিতে আগ্রহীনা। এখন আপনার মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে এটা আমরা কি বলছি? আরে বন্ধু এটা হল আসলে ট্রিক। আপনি মেয়েটিকে যত বোঝাতে পারবেন যে আপনি তার নাম্বার নিতে আগ্রহী নয় আপনার মেয়েটি থেকে নাম্বার চাইলে আপনাকে নাম্বার দেওয়া নেওয়ার তত বেশি বেড়ে যাবে। তাই মেয়েটির কাছ থেকে নাম্বার চাওয়ার আগে মেয়েটি যদি বুঝতে পারে যে আপনি তার নাম্বার নেওয়ার মত মতলব এ  আছেন। আগে থেকে তার নাম্বার নেওয়ার সুযোগ খুজতেছেন। তাহলে ৯৯% নাম্বার না দেওয়া সম্ভব না থেকে যায়। মেয়েটি যখন বুঝবে আপনি তার নাম্বার নিতে আগ্রহী তখন মেয়েটি আপনার নাম্বার চাওয়ার মাঝে খারাপ কোনো উদ্দেশ্য আছে এটা ভেবে নেবে। অথবা মেয়েটি এটাও ভাবতে পারে যে আপনি তার নাম্বারের জন্য এত পাগল হয়ে গেছেন তার মানে আপনাকে একবার নাম্বার দিলে আপনি তাকে নানাভাবে বিরক্ত করতে পারেন। মেয়েটি আপনাকে নাম্বার দিলে নিশ্চয়ন বাজে কোন প্রস্তুতির আপনার দ্বারা সৃষ্টি হতে পারে।

তাই উপরের এক থেকে ছয় নম্বর স্টেপ কমপ্লিট করা পর্যন্ত আপনি ভুলেও মেয়েটিকে বুঝতে দিবেন না যে আপনি তার কাছ থেকে নাম্বার নিতে আগ্রহী।

কিভাবে নাম্বার চাইতে হবে
আর যখন নাম্বার চাইবেন তখন হুট করে নাম্বার চাইবেন এবং নাম্বার চাওয়ার পেছনে ভালো এবং বড় একটা কারণ দেখে নাম্বার চাইবেন। এতে করে মেয়েটি মনে করবে আপনার তার কাছে নাম্বার চাওয়ার পিছনে খারাপ কোন উদ্দেশ্য নেই। হঠাৎ করে নাম্বারটা নেওয়ার দরকার পড়েছে তাই যার জন্য অথবা আপনি তার নাম্বার কখনো চাইতেন না। তখন কোন চিন্তা ভাবনায় ছাড়াই মেয়েটি আপনাকে নাম্বার দিয়ে দেবে আমি নিজে গ্যারান্টি দিলাম।
মেয়েটিকে বোঝান যে নাম্বার দিলে তারই উপকার হবে
মেয়েটিকে বোঝান যে নাম্বার দিলে  তারই উপকার হবে। এই স্টেপ টি আপনার জন্য একটি বোনাস স্টেপ অর্থাৎ আপনি যদি এই স্টেপ অনুসরণ করেন তবে আপনি সবথেকে বেশি উপকৃত হবেন। আর যদি অনুসরণ না করেন তাতেও কোন সমস্যা নেই। আমার মতে আপনি এই আট নাম্বার স্টেপটি দিয়েও যে কোন মেয়ের কাছে থেকে নাম্বার নিতে পারেন। এক্ষেত্রে আগের সব স্টেপগুলো ফলো না করলেও হয়তো তেমন কোন সমস্যা হবে না। কারণ আপনি যদি মেয়েটির কাছ থেকে নাম্বার চাওয়ার আগে মেয়েটিকে আগে বুঝাতে পারেন যে, সে যদি আপনাকে নাম্বারটি দেয় তবে সেই উপকৃত হবে তাহলে আশা করা যায় যে কোন মেয়ে আপনাকে নাম্বার দিয়ে দিবে।

এখন হয়তো আপনি মনে মনে ভাবতেছেন যে কিভাবে এটি বুঝাবেন। তাহলে চলুন আমি আপনাকে একটি উদাহরণ দিয়ে বুঝাচ্ছি। আপনি মেয়েটির সাথে কথা বলতে বলতে কৌশলে জেনে নিন যে মেয়েটির এমন কোন সমস্যা আছে কিনা যেটাতে আপনি তাকে হেল্প করতে পারেন। সেটা হতে পারে কোন ব্যাপারে কোন তথ্য লাগবে। তো আপনি এ ক্ষেত্রে বলতে পারেন কোন সমস্যা নাই। আমার এক ফ্রেন্ড আছে অথবা বলতে পারেন আমার এক পরিচিত একজন আছে এ ব্যাপারে জানেন। তোমার নাম্বারটা আমাকে দিও আমি তোমাকে ওর সাথে কানেক্ট করে দেবো অথবা তোমাকে মেসেজ করে জানিয়ে দেবো।

আশা করি পুরো বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন। আপনি যদি ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না।  ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
Riya Akther
আমার নাম রিয়া আক্তার। আমি একজন স্টুডেন্ট। মেয়ে পটানোর থেরাপি সম্পন্ন ব্যতিক্রমধর্মী একটি ওয়েবসাইট। আমি মূলত মেয়ে পটানোর থেরাপির ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেল লিখেছি। আমি আমার আর্টিকেলে আপনাদের মাঝে যেসব আইডিয়া শেয়ার করেছি এগুলো মূলত আমার বন্ধু বান্ধব ও বান্ধবীদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে নিয়েছি। আমার এই ওয়েবসাইটে কাজ করার উদ্দেশ্য হচ্ছে উদ্দেশ্য হচ্ছে যাতে করে সবাই তার ভালোবাসার মানুষের কাছে তার মনের কথা খুব সহজে জানাতে পারে এবং আমার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আমি যাতে আপনাদের ভালোবাসার মানুষটিকে পেতে আপনাদেরকে সকল ধরনের সাহায্য করতে পারি।