1. riyaakhter747@gmail.com : রিয়া আক্তার : রিয়া আক্তার
সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায় ১০০% কার্যকর
সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায়
সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায় ১০০% কার্যকর

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায়। আপনাদের মাঝে অনেকেরই একটা প্রশ্ন থেকে থাকে যে ফেসবুকে সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায় কি? আচ্ছা ফেসবুকে কিভাবে বুঝতে পারবেন যে কোন মেয়ে সিঙ্গেল এবং কোন মেয়ের বয়ফ্রেন্ড রয়েছে। আসলে ফেসবুকে যখন কোন ছেলে কোন মেয়েকে পটাতে চায়। তখন এটা জানা খুব জরুরী হয়ে পড়ে যে মেয়েটি আসলে সিঙ্গেল কিনা? তো আজ আমরা আপনাদের মাঝে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

তার আগে বলে রাখি আপনাদের সুবিধার্থে আমরা নিচে একটি ভিডিও অ্যাড করে দিয়েছি। যেখানে সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায় ১০০% কার্যকর সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি চাইলে পুরো ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন। তাহলে এটা ধারণা পেয়ে যাবেন এবং এছাড়া নিচে আমরা পুরো বিষয়টি ধাপে ধাপে বিস্তারিত ভাবে বর্ণনা করেছে। আপনি চাইলে পুরো আর্টিকেলটি পড়ে নিতে পারেন। আর্টিকেলটা সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থেকে থাকলে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানিয়ে দেবেন। আমরা দ্রুত আপনার সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করব।

সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায় ১০০% কার্যকর

অনেক সময় দেখা যায় যে ছেলেটা সিঙ্গেল মেয়ে চেনার কোন উপায় না পেয়ে একটা সময় মেয়েটিকে সরাসরি জিজ্ঞেস করে বসে আপনি কি সিঙ্গেল বা আপনাকে বয় ফ্রেন্ড আছে? আপনি ভুলেও এই কাজটি করবেন না। এই কাজটি করার মানে হল মাঠে নামার আগে বোল্ড আউট হয়ে যাওয়া। কারণ যখনই আপনি মেয়ের থেকে জানতে চাইবেন যে সে সিঙ্গেল কিনা? তখন মেয়েটি স্পষ্টভাবে বুঝতে পারবে যে আপনি তাকে পটাতে চাচ্ছেন এবং সে তখন সতর্ক হয়ে যাবে।

আবার অনেক ছেলে আছে চালাক। তারা মেয়েটিকে সরাসরি জিজ্ঞেস না করে মেয়েটির কোন বন্ধু বা বান্ধবীকে জিজ্ঞেস করে পুরো বিষয়টি জেনে নিতে চায়। কিন্তু আপনি জেনে অবাক হবেন যে এটি আসলে একটি ভুল কাজ। কারণ আপনি যখনই তার কোন বন্ধু বান্ধবের কাছে জিজ্ঞেস করবেন। তখন সেই মেয়েটি তাকে বলে দেবে ওই অমুক ছেলে না আমার থেকে  জানতে চাইল তুই সিঙ্গেল আছিস কিনা? এটা শুনে মেয়েটি মনে মনে একটু খুশি তো হবে। কিন্তু যেহেতু সে আগে থেকে জেনে গেল যে আপনি তার সাথে প্রেম করতে বা তাকে পটাতে আগ্রহী। কাজে মেয়েটি আপনাকে পাত্তা দিতে চাইবে না। তারমানে আগ বাড়িয়ে জানতে চেয়ে নিশ্চয়ই আপনি বাঁশটা খেলেন।

আপনি যদি ফেসবুকে কোন মেয়েকে পটাতে চান। তাহলে সেই মেয়েটি সিঙ্গেল কিনা সেটা আপনাকে নিজে কৌশল করে বের করতে হবে। আর আজকে আমি আপনাদের মাঝে তেমনি কয়েকটি কৌশল শেয়ার করব। যেগুলো ব্যবহার করে আপনার ফেসবুকে যেকোন মেয়ে সিঙ্গেল কেনা তা বুঝতে পারবেন। আর হ্যাঁ একটি কথা অনেকেই মে সিঙ্গেল কিনা সেটা বোঝার জন্য মেয়েদের প্রোফাইলে গিয়ে তাদের রিলেশন স্ট্যাটাস দেখে। যদি মেয়েটির রিলেশন স্ট্যাটাস সিঙ্গেল হয় তাহলে তারা মনে করে নেয় যে মেয়েটি সিঙ্গেল।

আবার যদি তাদের রিলেশন স্ট্যাটাস ইন এ রিলেশন শিপ দেওয়া থাকে তাহলে ছেলেরা ভেবে নেয় মেয়েটির বয়ফ্রেন্ড আছে। আমি বলব এটা একটা ভুল কৌশল। কেননা 95% মেয়েরা তাদের রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসে সঠিক কোন তথ্য শেয়ার করে না। বিশ্বাস না হলে আপনার যে বান্ধবী গুলো প্রেম করে তাদের প্রোফাইলে গিয়ে দেখুন। আর যারা প্রেম করে না তাদের প্রোফাইলে গিয়ে দেখুন। দেখবেন আপনার বান্ধবীদের মধ্যে ৯৫% ক্ষেত্রে আপনি কোন মিল খুঁজে পাবেন না। তার মানে হল এখন থেকে মেয়েদের প্রোফাইলে রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসে কোন বিশ্বাস করবেন না।

সরি আপনাদের সাথে অনেক বেশি বাড়তি কথা বলে ফেললাম এবার চলুন শুরু করা যাক সিঙ্গেল মেয়ে চেনার উপায়।

মেয়ে পটানোর সম্পর্কে আরো নতুন নতুন মজাদার সকল তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন এবং আপনি চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজেও যুক্ত হতে পারেন।

নাম্বার ১ ট্যাগ চেক করুন

অর্থাৎ আপনি যে মেয়েটিকে পছন্দ করেন অথবা আপনি যে মেয়েটিকে পটাতে চাচ্ছেন। সেই মেয়েটির টাইম লাইনে গিয়ে দেখতে হবে যে মেয়েটি তার পোস্ট বা এ স্ট্যাটাস গুলো নির্দিষ্ট কোন ছেলেকে ট্যাগ করেছে কিনা। অথবা তার পিক গুলোতে কাউকে ট্যাগ করেছে কিনা। কেননা 95% মেয়ে তার পোস্ট এবং তার সকল পিকগুলোতে বয়ফ্রেন্ডকে ট্যাগ করে। কাজেই যদি দেখেন যে মেয়েটি তার বেশ কয়েকটি পোস্ট এবং পিক নির্দিষ্ট কোন ছেলেকে ট্যাগ করেছে। তাহলে ভেবে নিবেন যে মেয়েটির বয়ফ্রেন্ড আছে।

আর হ্যাঁ যদি দেখেন যে মেয়েটি যে পোস্ট বা পিক গুলোতে কোন ছেলেকে ট্যাগ করেছে এবং সেগুলো অনেক দিন আগের। তাহলে লক্ষ করবেন তার পরবর্তী পোস্টগুলোর মাঝে কোন ছেকা মূলক পোস্ট আছে কিনা? যদি না থাকে তার মানে হল তার বয়ফ্রেন্ড এখনো আছে। আর যদি তার কোন একামূলক পোস্ট টাইম লাইনে দেওয়া থাকে তার মানে আপনাকে বুঝে নিতে হবে মেয়েটির সাথে ব্রেকআপ হয়ে গিয়েছে।

কৌশল নাম্বার ২ স্ট্যাটাস বা পিক গুলোর কমেন্ট চেক করা

আজকাল রিকশাচালক থেকে শুরু করে সবাই ফেসবুক ইউজ করেন। তাহলে যে মেয়ে ফেসবুক ইউজ করে তার বয়ফ্রেন্ডও অবশ্যই ফেসবুক ইউজ করে। তার মানে সে তার ফ্রেন্ড লিস্টে অবশ্যই অ্যাড আছে। তাহলে একবার ভেবেই দেখুন তো গার্লফ্রেন্ড ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিল আর তাতে বয়ফ্রেন্ড কমেন্ট করবে না এটা কি হয়? তার বয়ফ্রেন্ড অবশ্যই তার সকল পিক এবং স্ট্যাটাসে কমেন্ট করবে। আর স্বাভাবিকভাবে সাধারণ মানুষ বা অন্যান্য বন্ধুবান্ধব কমেন্ট আর বয়ফ্রেন্ডের কমেন্টের ধরন আলাদা হবে। যেটা কমেন্ট লিস্ট পড়লে স্বাভাবিকভাবেই চোখে পড়বে যে এই ছেলেটা ঐ মেয়েটির জন্য অবশ্যই স্পেশাল। আরেকটা বিষয় খেয়াল করবেন ৯৯% মেয়েরা বয়ফ্রেন্ড কমেন্ট করলে তার রিপ্লাই দেয়।

কাজে এসব জিনিস আপনি লক্ষ্য করবেন এবং এসব জিনিস খুব ভালোভাবে লক্ষ্য করলে আপনি বুঝতে পারবেন যে  মেয়েটি সিঙ্গেল নাকি তার বয়ফ্রেন্ড আছে। আর একটা বিষয় না বললে নাই বেশ কিছু মেয়ের আবার একাধিক ফেসবুক আইডি থাকে। বয়ফ্রেন্ডকে বলে বা বয়ফ্রেন্ডকে জানে যে মেয়েটির একটা আইডি। আর মেয়েটির সেই আইডিতে তার বয়ফ্রেন্ডকে এড করে রেখেছে ঠিকই। কিন্তু মেয়েটি অন্য আইডি ইউজ করেছে সেটা যে কোন বয়-ফ্রেন্ড এড করেনি। তো আপনি হয়তো এখন বলতে পারেন যে মেয়েটি যে আইডিতে বয়ফ্রেন্ড অ্যাড করেনি সেই আইডিতে যদি আমি থাকি। আর মেয়েটি সিঙ্গেল কিনা তা জানার জন্য আপনার দেওয়া কৌশলগুলো যদি ট্রাই করি তাহলে ফলাফল আসবে মেয়েটির সিঙ্গেল।

অথচ বাস্তবে মেয়েটির বয়ফ্রেন্ড আছে এবং তাহলে আমি আপনাদের যে প্রশ্নটি শিখিয়ে দিয়েছি সেটি সম্পূর্ণ ভুল প্রমাণিত হবে। এ বিষয়ে আপনাদের মনে নানা রকম প্রশ্ন জাগতে পারে তবে আমি আপনাদের সকল প্রশ্ন সমাধান করে দিচ্ছি। তাহলে আমি বলছি শুনুন মেয়েটিকে আপনি সিঙ্গেল ভেবে একটুও ভুল করেনি। এখন আপনার প্রশ্ন হল এর মানে কি এর মানে হলো মেয়েটি অন্য ছেলের সাথে প্রেম করতে চাই। এজন্য মেয়েটিকে সিঙ্গেল বললে ভুল হবে না।

কৌশল নাম্বার ৩ চ্যাট করার কৌশল জেনে নিন

যে মেয়েটির সম্পর্কে আপনি জানতে চাচ্ছেন যে মেয়েটি আসলে সিঙ্গেল কিনা এবং সেই মেয়েটির সাথে যদি আপনার ফেসবুক অথবা অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়া চ্যাট হয়ে থাকে। তাহলে আপনি চাইলে একটু চালাকি করে কৌশলে মেয়েটির থেকে জানতে পারবেন যে মেয়েটি সিঙ্গেল কিনা। আমি আপনাদের শুরুতেই বলেছি একটি মেয়ে সিঙ্গেল কিনা সেটি কখনো আপনি সেই মেয়েটিকে সরাসরি জিজ্ঞেস করবেন না। ভাবতেছেন তাহলে উপায় কি? উপায় হচ্ছে- আপনাকে মেয়েটিকে ডাইরেক্ট না বলে তার সাথে চ্যাট করার সময় কৌশলে কথাটি বের করে নিতে হবে। কিভাবে সেটা করতে হবে তা আমরা উদাহরণ দিয়ে আপনাকে বুঝিয়ে দিচ্ছি।

আপনি তার সাথে কথা বলতে বলতে কথার ফাঁকে সুযোগ বুঝে বলতে পারেন। তুমি তো তোমার বয়ফ্রেন্ডের সাথে ঘুরতে ফিরতেছো মোবাইলে কথা বলতেছো। কিন্তু আমার তো গার্লফ্রেন্ড নেই কি করি বলোতো। তখন যদি তার বয়ফ্রেন্ড না থাকে তবে সে নিশ্চয়ই এমনটা বলবে যে তুমি কার থেকে শুনলে যে আমার বয়ফ্রেন্ড আছে আমার তো বয়ফ্রেন্ড নাই। তখন আপনি সহজে বুঝতে পারবেন মেয়েটি আসলে সিঙ্গেল কিনা।

আবার চ্যাটিং করার সময় আপনি মেয়েটিকে জিজ্ঞেস করতে পারেন কেমন আছেন আপনি? মেয়েটি হয়তো বলবে আমি ভালো আছি আপনি কেমন আছেন তখন আপনি বলবেন, গার্লফ্রেন্ড না থাকা মানুষ যেমনটা থাকে আপনার তো বয়ফ্রেন্ড আছে তাই এই জ্বালাটা বুঝবেন না। তখন মেয়েটি উত্তর দিবে আমার তো বয়ফ্রেন্ড নাই। অথবা সে যেটাই বলুক না কেন আপনি সেখান থেকে খুব সহজে বুঝতে পারবেন মেয়েটির আসলে বয়ফ্রেন্ড আছে কিনা বা মেয়েটি সত্যি সিঙ্গেল কিনা।

উপরে যে তিনটি কৌশল আমরা আপনাদের মাঝে শেয়ার করছি তার মধ্যে কোনটি আপনি সবথেকে বেশি ভালো লেগেছে তা অবশ্য কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন এবং আর্টিকেল যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তবে আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

আমার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করব
About The Author
রিয়া আক্তার
আমি রিয়া আক্তার। মেয়ে পটানোর থেরাপি ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেল আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে লিখেছি। আমি চাই প্রত্যেকটা মানুষ যাতে তার প্রিয়জনের কাছে তার ভালোবাসার কথা বলতে পারে ও প্রিয় জনকে ভালবাসতে পারে।